নারী কেলেঙ্কারি নিয়ে অবশেষে ক্ষমা চাইলেন ইমাম-উল হক

বিশ্বকাপের পর যখন নিজেদের গুচিয়ে নেয়া নিয়ে ব্যস্ত পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা, তখনই বিস্ফোরণ। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যায়, যেখানে দেখা যায় পাকিস্তানি ওপেনার ইমাম-উল হকের সঙ্গে এক অজ্ঞাত নারীর আপত্তিকর কথোপকথন।
সেই কথোপকথন থেকেই জানা যায়, একাধিক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর সম্পর্ক ছিল ইনজামাম-উল হকের ভাতিজার। যে নারী কথোপকথ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়, সেই নারীর সঙ্গেও বিশেষ সম্পর্ক ছিল ইমাম-উল হকের। স্ক্রিনশর্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আসার পর থেকেই সেটা ভাইরাল হয়ে যায়।

এবার সেই নারী কেলেঙ্কারির ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন ইমাম-উল হক। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওয়াসিম খান মিডিয়াকে জানিয়েছেন ইমাম-উল হকের ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি। পাকিস্তানি এই ওপেনার পিসিবিকে জানিয়েছেন, ‘ভুল বোঝাবুঝির কারণেই ওই স্ক্রিনশর্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় চলে আসে এবং ভাইরাল হয়ে যায়।’ ওয়াসিম খান বলেন, ‘ইমাম-উল হক এই ঘটনায় অনুতপ্ত এবং ভুল বোঝাবুঝির কারণে যে ঘটনা ঘটে গেছে, তার জন্য তিনি অনুতপ্ত। আমরা তাকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছি, পিসিবির নির্ধারিত সীমা এবং খেলোয়াড়দের কাছে পিসিবি কী চায়, সেটা।’

একই সঙ্গে ওয়াসিম খান জানিয়ে দেন, দেশের (পাকিস্তানের) ক্রিকেটারদের কাছ থেকে পিসিবি এমন কোনো আচরণ প্রত্যাশা করে না যা পিসিবির স্ট্যান্ডার্ডের সঙ্গে খাপ খায় না। কারণ, ক্রিকেটাররা হচ্ছেন সারা বিশ্বে পুরো দেশের শুভেচ্ছাদূত।

পাঠকের মতামত