বাংলাদেশের বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে খেলা কঠিন: আশরাফুল

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল নিয়ে সর্বত্রই চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। দলে কারো অনপুস্থিতি নিয়ে খুব বেশি উচাটান নেই বিশ্লেষকদের মাঝে। সবাই একবাক্যে বলছেন, সময়ের সেরা দল গঠন হয়েছে। এখন মাঠে পারফর্ম করাই মূল চ্যালেঞ্জ। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলও বলেছেন, সেরা দল হয়েছে। অভিজ্ঞতায় পরিপূর্ণ দল। তবে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী শোনালো না আশরাফুলের কণ্ঠ। বিশেষ করে এবার সেরা চারে খেলার আশায় বুক বেঁধেছে গোটা দেশ।

সেখানে আশরাফুল বলছেন, টুর্নামেন্টের ফরম্যাট, অনেক ম্যাচের কারণে সেমিতে খেলা বাংলাদেশের জন্য কঠিন হবে। সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান অবশ্য আশাবাদী বন্ধু মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্ব নিয়ে। তার মতে, যা কিছু ঘাটতি-কমতি সেগুলো মিটিয়ে দিতে পারে মাশরাফির অধিনায়কত্ব।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল নিয়ে মিরপুর স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের আশরাফুল বলেছেন, ‘বিশ্বকাপের হিসেবে আমি বলব যে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দল। পাঁচ জন ক্রিকেটার আছেন যারা ১২ বছরের ওপরে খেলছেন। যেহেতু এবারের ফরম্যাট একটু ভিন্ন, লাস্ট তিনটা বিশ্বকাপে কিন্তু সফল, আমরা তিনটা করে জয় পেয়েছিলাম। কিন্তু এবারে যদি সেমিফাইনালে যেতে হয়, আমাদের কমপক্ষে ৫-৬টা ম্যাচ জিততে হবে। ওইদিক থেকে চিন্তা করলে অভিজ্ঞ দল, কিন্তু সেমিফাইনাল খেলা একটু কঠিন হয়ে যাবে।’

বোলিং আক্রমণ নিয়ে কিছুটা চিন্তিত দেখালো আশরাফুলকে। ম্যাচ জিততে বোলারদের ভালো করতেই হবে। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের বেশিরভাগ বোলাররা কিন্তু একটু ইনজুরি সমস্যায় আছে। যেই ধরনের উইকেটে খেলা হবে সেখানে আসলে ভালো বোলিং না করলে ম্যাচ জেতা কঠিন হবে।’ রুবেল হোসেন ছাড়া দলের কোনো পেসারই দ্রুতগতির নন। আশরাফুলের অভিজ্ঞতা বলছে ইংল্যান্ডে গতির ঝড় তুলতে পারা পেসার দরকার ছিল। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘যেই ধরনের উইকেটে খেলা হবে এবং আমাদের বোলারদের যেই গতি, এই জায়গায় মনে হয় আমরা একটু পিছিয়ে থাকব। আমাদের রুবেল শুধু ১৪০ এ বল করতে পারে, বাকিরা ১৩০-১৩৫ এইরকম।’

পাঠকের মতামত