ভারতের ১৫ ক্রিকেটার জড়িয়েছেন স্বার্থের সংঘাতে

ক্রিকেটারদের কাজ মূলত ক্রিকেট খেলা। কিন্তু অবসরের পর বিভিন্ন দিকে ছড়িয়ে পড়েন ক্রিকেটাররা। কেউ আবার ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট কাজের সঙ্গেও যুক্ত থাকেন। এখানেই শেষ নয়, অনেক ক্রিকেটার আছেন যারা একসঙ্গে ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট একাধিক কাজের সঙ্গে জড়ান। এমন ক্রিকেটারদের নিয়ে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দ্বাদশ আসরের শুরু থেকেই ‘স্বার্থ সংঘাত’ নিয়ে বেশ সক্রিয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। স্বার্থ সংঘাতের প্রশ্নে জড়িয়ে যাওয়া ক্রিকেটারদের তালিকাও ইতোমধ্যে তৈরি করেছে বিসিসিআইয়ের এথিক্স কমিটি। সেই তালিকায় উঠে এসেছে দেশটির অন্তত ১৫ জন ক্রিকেটারের নাম। তবে তালিকায় কাদের নাম রয়েছে অবশ্য তা এখনো পরিষ্কার নয়। জানা গেছে, সাবেক ও বর্তমান মিলিয়ে এরই মধ্যে ১৫ জন ক্রিকেটারের তালিকা তৈরি করেছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত বিসিসিআইয়ের এথিক্স কমিটি। এখানেই শেষ নয়। এই তালিকা ইতোমধ্যেই এথিক্স অফিসারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের একটি সূত্র বলছে, ‘কিছু লোককে নিয়ে এই স্বার্থের সংঘাত ব্যাপারটা চলছে। আরও অনেক লোক আছেন, যারা প্রচারমাধ্যমের নজরে নেই বলে আলোচনায় নেই।’ আইপিএলের শুরুতেই স্বার্থের সংঘাতের প্রশ্নে জড়ায় সৌরভ গাঙ্গুলির নাম। ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) সভাপতির দায়িত্বে থেকেও দিল্লি ক্যাপিটালসের পরামর্শক হিসেবে যোগ দেওয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন সাবেক এই ভারতীয় অধিনায়ক।

এরপর শচিন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষ্মণসহ আরও অনেক ক্রিকেটারের বিরুদ্ধেই স্বার্থ সংঘাতের অভিযোগ ওঠে। বোর্ডের ওই সূত্র বলছে, স্বার্থ সংঘাত ইস্যুতে সৌরভের নাম বেশ জোরালোভাবে আলোচিত হচ্ছে। ওই সূত্রের ভাষ্য, ‘সিএবির (পশ্চিমবঙ্গ ক্রিকেট সংস্থা) প্রেসিডেন্ট হয়েও কি করে সৌরভ একটা আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে জড়ালো? এ নিয়ে বোর্ডে তীব্র অসন্তোষ বিরাজ করছে। আরও অনেকের নাম উঠে এসেছে।’

পাঠকের মতামত