মোদি-অমিত শাহর বিরুদ্ধে আদালতে যাবে কংগ্রেস

মোদি-অমিত শাহর বিরুদ্ধে আদালতে যেতে পারে কংগ্রেস
নির্বাচন কমিশনের নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ভারতের কংগ্রেস পার্টি। এ জন্য তারা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপি প্রধান অমিত শাহর বিরুদ্ধে আদালতে যেতে পারে। শনিবার দলটি বলেছে, বার বার মডেল কোড ভঙ্গ করছেন ওই দু’জন। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন নীরব। তাই এ বিষয়ে প্রতিকার পেতে তাদের আদালতে যাওয়ার অধিকার আছে। শনিবার সংবাদ সম্মেলন করেন কংগ্রেস নেতা অভিষেক মানু সিংভি। তিনি বলেন, মডেল কোড লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আদালতে যাওয়ার অধিকার আছে আমাদের। আমরা সেদিকে যেতে পারি।

এ সময় তিনি নির্বাচন কমিশনকে ‘মেগা পুলিশম্যান’ আখ্যায়িত করে বলেন, তাদের চোখ অন্ধ হয়ে গেছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।

নির্বাচন কমিশনকে তিনি কটাক্ষ করে ‘ইলেকশন অমিশন’ বলে আখ্যায়িত করেন। মোদি এবং অমিত শাহ কি আচরণবিধির বাইরে কিনা তা নিয়ে তিনি বিস্ময় প্রকাশ করেন। নির্বাচন কমিশনের আচরণবিধিকে তিনি ‘মোদি কোড অব কন্ডাক্ট’ বা মোদির আচরণবিধি বলে আখ্যায়িত করেন।

মানু সিংভি অভিযোগ করেন, তিনটি ক্যাটেগরিতে মোদি ও শাহ আচরণবিধি ভঙ্গনের জন্য দায়ী। তা হলো, ভোটারদের মেরুকরণ করা, নির্বাচনী প্রচারণায় সশস্ত্র বাহিনীকে টেনে আনা ও নির্বাচনের দিনে নির্বাচনী র‌্যালি করা। সিংভি আরো বলেন, আমাদের অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন বেশ কিছু নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। তার প্রশংসা করি আমরা। এই ধারা যদিই টিকে থাকে তাহলে কেন মোদি ও শাহর বিরুদ্ধে তা প্রয়োগ করা হচ্ছে না।

পাঠকের মতামত