লাবণ্য হত্যা: রিমান্ড হলো দুই চালকের

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফাহমিদা হক লাবণ্য নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার দুই চালককে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পেয়েছে পুলিশ। রোববার রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানা-পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক এ আদেশ দেন। আদালতে দুই চালককে হাজির করে সাত দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হলে কাভার্ড ভ্যান চালক আনিছুর রহমানকে (২৭) চার দিন এবং উবারের মোটরসাইকেল চালক সুমন হোসেনকে (২৩) দুই দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেওয়া হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলা নগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নুরুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করেছেন। গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের মোটরবাইক থেকে পড়ে নিহত হন ২১ বছর বয়সী লাবণ্য। লাবণ্য বেসরকারি ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্সের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। তিনি ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ইমদাদুল হকের মেয়ে। দুর্ঘটনার দিন লাবণ্য রাজধানীর শ্যামলীর বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন।

পাঠকের মতামত