ইমরান-মোদি গ্যালারিতে বসেই বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান লড়াই দেখবেন!

বিশ্বকাপে মাঠে খেলায় ব্যস্ত থাকবেন সরফরাজ-বিরাটরা। নিজ নিজ দলকে সমর্থন দিতে গ্যালারিতে বসে থাকবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিরল এ দৃশ্য দেখার প্রবল সম্ভাবনা আছে ১৬ জুন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। ওই দিন বিশ্বমঞ্চে হবে পাক-ভারত মহারণ। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হামলার জেরে ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক অবস্থা ইতিহাসের তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। সেই উত্তপ্ত পরিস্থিতি প্রশমনে পারমাণবিক শক্তিধর দুই দেশের সরকারপ্রধানকে একসঙ্গে করতে চাচ্ছে ব্রিটিশ সরকার। মোক্ষম সময় হিসেবে বিশ্বকাপের ওই ম্যাচকে বেছে নিতে চায় তারা।

ভারতে এখন চলছে লোকসভা নির্বাচন। আগামী মে মাসের শেষ দিকে স্পষ্ট হয়ে যাবে যে কে বসছেন দিল্লির মসনদে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফের নির্বাচিত হলে বিশ্বকাপে টিম ইন্ডিয়াকে সমর্থন দিতে ইংল্যান্ড যেতে পারেন। অন্য কেউ প্রধানমন্ত্রী হলে তারও জোরালো সম্ভাবনা আছে। আপাতত ইমরান খানের কোনো সমস্যা নেই। সাবেক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আগেভাগেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন, মাঠে বসে অন্তত দুটি ম্যাচ দেখতে চান তিনি। লন্ডনে তিন দিন অবস্থান করারও কথা আছে তার।

চিরবৈরী দুই পড়শী দেশের প্রধানমন্ত্রী শুধু খেলা দেখে ইংল্যান্ড ছাড়বেন তা চায় না দেশটির সরকার। ক্রিকেটীয় লড়াই দেখতে এসে যাতে রাজনৈতিক সমাধানও বের হয় তার সুব্যবস্থা করতে চায় ব্রিটিশ সরকার। পাকিস্তানের প্রভাবশালী দৈনিক ‘দ্য নেশন’ জানিয়েছে, ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা কমাতে তৎপর ব্রিটেন। ভারতে চলতি নির্বাচনের বৈতরণী অতিক্রম করে মোদি ক্ষমতায় এলে সেই সম্ভাবনা থাকবে বেশি।

পাঠকের মতামত