মা মদ্যপানে মাতাল, গাড়ি সামলালো শিশু!

অতিরিক্ত মদ্যপানে বেশ বেসামাল হয়ে পড়েছিলেন তালোয়া ফস্টার। নিজে ট্রাক চালাতে চালাতে নেশার ঘোরে হঠাৎ-ই সিট থেকে পড়ে গেলেন রাস্তায়। আর তালোয়ার তিন বছরের বাচ্চা স্টিয়ারিং ধরে টুক টুক করে রাস্তার ধারে নিয়ে গিয়ে দাঁড় করালো গাড়িটাকে। যা দেখে চোখ কপালে সকলের।

ওকলাহোমার বাসিন্দা ওই মার্কিন যুবতী দুই সন্তানের মা। মদে চুর হয়ে যমজ সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে গাড়ি চালানোর আগে খুব একটা দ্বিধা বোধ করেননি তিনি। পাড়ার গলিতে নয়, ছোট পিক-আপ ট্রাকটিকে নিয়ে তিনি ছুটছিলেন চার লেনের বড় রাস্তা ধরে। হুস হুস করে দু’পাশ দিয়ে ছুটে যাচ্ছে গাড়ি। বেসামাল তালোয়ার হাত দু’টো তখন স্টিয়ারিং সোজা রাখতে পারছে না। নিজে টলে যাচ্ছেন বার বার। ট্রাকটিও টাল খাচ্ছে। বেসামাল দশা পিছন থেকেই আঁচ করে নিরাপদ দূরত্ব রেখে তালোয়ার গাড়িকে ওভারটেক করে বেরিয়ে যাচ্ছিল অন্য গাড়িগুলি। না হলে আগেই বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। তবে এক সময় বোধহয় হাল ছেড়ে দেয় তালোয়ার স্নায়ুতন্ত্র। হাত ছেড়ে চলন্ত গাড়ির সিট থেকে তিনি রাস্তায় পড়ে যান।

তালোয়ার তিন বছর বয়সী দু’ছেলেই তখন গাড়িতে। মাকে পড়ে যেতে দেখে পাশে বসে থাকা ছেলে সিট বেল্ট থেকে নিমেষে মুক্ত করে নিজেকে। বিস্ময়কর ভাবে সে তার ছোট্ট ছোট্ট হাতে স্টিয়ারিং ধরে গাড়িটাকে রাস্তার ধারে নিয়ে যায়। ডিভাইডারে আলতো ধাক্কা খেয়ে থেমে যায় গাড়ি। বাকিটা সামলে নেয় কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ।

ঘটনার পর তালোয়া ফস্টারের নামে শিশুর জীবন বিপন্ন করার অভিযোগে ফৌজদারি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। তবে, ব্যস্ত রাস্তায় তিন বছরের শিশু বিপদের সময় যেভাবে স্টিয়ারিং সামলেছে, তা দেখে হতবাক পুলিশের বড় কর্তারাও।

পাঠকের মতামত