খেতে গিয়েছিলাম ক্যাসিনোতে : খালেদ মাহমুদ

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান ক্রিকেট দলের কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের একটি ভিডিও সোমবার ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে কলম্বোর একটি ক্যাসিনোতে জুয়া খেলায় ব্যস্ত মানুষের পাশে বসছেন তিনি। ভিডিও ভাইরাল হওয়া প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমকে সুজন বলেন, আমার এক বন্ধুকে নিয়ে সেখানে গিয়েছিলাম। ক্ষুধা পেয়েছিল বলে সেখানে যাই খাওয়ার জন্য। ক্যাসিনোতে শুধু কার্ড খেলা হয় না, খাবারও পাওয়া যায়। সে কারণেই ওখানে যাই। ক্যাসিনোতে যাওয়া খালেদ মাহমুদ সুজনের ভিডিও কেউ একজন মোবাইলে ধারণ করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ায় এ নিয়ে শুরু হয় সমালোচনা।

আর সেই সমালোচনার বিষয় নিয়ে খালেদ মাহমুদ বলেন, আমি জানি, আমি কেন সেখানে গিয়েছিলাম। কার্ড খেলার তো প্রশ্নই ওঠে না। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সিরিজ চলছে; কোচ হিসেবে আমার সমস্ত মনোযোগ সেখানে। ক্যাসিনোতে এক বাঙালি ছিলেন। তিনি আমার কাছে কার্ড চাইলে তাকে কার্ডও দিই। ব্যস, এইটুকুই। এখন এ নিয়ে যদি ফেসবুকের মতো জায়গায় আলোচনা-সমালোচনা হয়, তাতে আমার কী করার আছে?

শ্রীলংকায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই খেলায় হেরে সিরিজ হাতছাড়া করা বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশের আশঙ্কায় পড়েছে। দলের এমন বাজে পারফরম্যান্সের মধ্যে নেতিবাচক খবরে এলেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। এর আগে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে তিনি ক্যাসিনো বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। জাতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবে ওই বিশ্বকাপে গিয়ে তিনি অস্ট্রেলিয়ার একটি ক্যাসিনোতে ক্যামেরাবন্দি হন। তবে পরে তিনি জুয়ার কথা অস্বীকার করে জানান, রাতের খাবার খুঁজতে তিনি ক্যাসিনোতে ঢুকে ছিলেন।

পাঠকের মতামত