চট্টগ্রামে গলা কেটে স্বামীকে খুন প্রথম স্ত্রীর

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে পারিবারিক কলহের জেরে ধরে স্বামী সনাতন মজুমদার প্রকাশ সনকের (৪৫) গলা কেটে খুন করেছে প্রথম স্ত্রী লাকী মজুমদার।

সোমবার দিবাগত রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সনাতন মজুমদার উপজেলার জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের দেওয়ানপুর গ্রামের অনু মিকারবাড়ির ভবরঞ্জনের ছেলে।

খবর পেয়ে রাতে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ। এ সময় ঘটনার সঙ্গে জড়িত ঘাতক প্রথম স্ত্রী লাকী মজুমদারকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, গত কয়েক দিন ধরে বাড়ি মেরামত নিয়ে সনাতন ও লাকী মজুমদারের মধ্যে বিবাদ চলছিল। এর মধ্যে উভয়ে কয়েক দফা হাতাহাতিতেও লিপ্ত হয়েছিল।

ঘটনার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে বাড়ির উঠানে স্বামীকে লাঠি দিয়ে আঘাত করেন লাকী। এতে তার মাথা ও মুখ ফেটে রক্ত বের হয়। এ সময় দ্বিতীয় স্ত্রী প্রিয়াংকা বাধা দিলেও প্রথম স্ত্রী স্বামীকে উঠান থেকে টেনেহিঁচড়ে ঘরের ভেতর নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়।

একপর্যায়ে ঘরে থাকা কাঠমিস্ত্রিদের রেখে যাওয়া করাত দিয়ে স্বামীকে জবাই করে হত্যা করে বস্তাবন্দি করে।

এদিকে দ্বিতীয় স্ত্রী ঘটনা জানতে পেরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ রাতেই স্থানীয় ইউপি সদস্যকে নিয়ে দরজা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে। এ সময় ঘাতক স্ত্রীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। প্রথম স্ত্রীর ঘরে শান্তা ও অপূর্ব নামে দুটি সন্তান রয়েছে। দ্বিতীয় ঘরে কোনো সন্তান নেই।

সূত্রটি আরও জানায়, কয়েক বছর আগে লাকী মজুমদার পরকীয়ায় জড়িত হয়ে অন্যের সঙ্গে পালিয়ে যায়। এর পর সনাতন প্রিয়াংকাকে বিয়ে করেন।

এর এক বছর পর লাকী সনাতনের কাছে আবার ফিরে আসেন। এটি নিয়ে স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিশ শেষে দুই স্ত্রীকে নিয়ে তিনি সংসার করছিলেন। এ ব্যাপারে জোরারগঞ্জ থানার সিনিয়র এসআই আবেদ আলী জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খুনের ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রথম স্ত্রী লাকী মজুমদারকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

পাঠকের মতামত