১২ বছেরের এই কিশোরের আবিষ্কার বাঁচাবে সমুদ্র

মাত্র ১২ বছর বয়সের হাজিক কাজি বানিয়ে ফেলেছে ‘এরভিস’ নামে একটি জাহাজের নকশা, যা সমুদ্রের বর্জ্য সাফ করে সামুদ্রিক জীবনকে বাঁচাবে। হাজিক স্কাভারতের পুনের বাসিন্দা। এদিকে প্রতিনিয়ত দূষিত হচ্ছে সমুদ্র। জমছে বর্জ্য। মাত্রা ছাড়াচ্ছে দূষণ। এতে বিপর্যস্ত হচ্ছে সামুদ্রিক জীবন। দূষণের প্রতিকার খুঁজতে যখন বিজ্ঞানীরা ব্যর্থ হচ্ছেন, ঠিক তখনই এর সমাধানসূত্র দিল ছোট্ট হাজিক। বয়স ১২ হলেও তার বুদ্ধি তুখোড়।

তার নকশা করা জাহাজের, যা সমুদ্রের বর্জ্য সাফ করে সামুদ্রিক জীবনকে বাঁচাবে। এরই মধ্যে তার এ আবিষ্কার জায়গা পেয়েছে গ্লোবাল অর্গানাইজেশন টেডএক্স ও টেড৮ এর মতো জায়গায়। বিজ্ঞানীরাও তাজ্জব বনে গেছেন কিশোরের বুদ্ধি দেখে। তার তৈরি করা জাহাজটি সমুদ্রের বর্জ্য ছেঁকে নেবে। অন্যদিকে পানি দূষণমুক্ত করে সামুদ্রিক প্রাণ বাঁচাবে।

হাজিক বলে, ‘ইন্টারনেটে সামুদ্রিক দূষণের ওপর নানা তথ্যচিত্র দেখেই আমি এমন একটা জাহাজ বানানোর কথা ভাবি। কীভাবে কাজ করবে ‘এরভিস’? কিশোর জানায়, এই জাহাজে লাগানো থাকবে বিশেষ কয়েকটি সেন্সর। সেটি বর্জ্যসহ সমুদ্রের পানি শুষে নেবে। অন্য সেন্সর সেই দূষিত পানি থেকে আবর্জনা ও সামুদ্রিক প্রাণীদের আলাদা করবে।

এরপর চলবে পানি শোধনের পালা। প্লাস্টিক ও অন্যান্য আবর্জনাকে পাঁচটি স্তরে ভাগ করা হবে, সেগুলো জৈব সার তৈরির কাজে লাগবে। অন্যদিকে ছেঁকে নেয়া শোধিত পানি ও সামুদ্রিক প্রাণীদের ফের সমুদ্রে ছেড়ে দেয়া হবে। মাত্র নয় বছর বয়সে এ ধরনের জাহাজ তৈরির পরিকল্পনা মাথায় আসে কাজির। বর্তমানে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে কাজ করছে সে।

পাঠকের মতামত