উইকেট হারালো খুলনা

ইনজুরির কারণে বেশ কয়েকটি ম্যাচ দলের বাইরে ছিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বাঁহাতি ওপেনার এভিন লুইস। চট্টগ্রাম পর্বে দলে ফিরেই ব্যাট হাতে চেনা রূপে ধরা দিলেন লুইস, যেখানে ইনজুরির আগে ছিলেন নিস্প্রভ। খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে ব্যাট হাতে রীতিমত চালালেন তাণ্ডব। তাঁর দুর্দান্ত এক শতকে ২৩৭ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা, যা বিপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ দ্বিতীয় দলীয় সংগ্রহ।

টসে জিতে কুমিল্লাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছিল খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সেখানেই ভাগ্য বদলে যায় কুমিল্লার। ব্যাটিংয়ে নেমে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং এভিন লুইসের ব্যাটিংয়ে ৪৭ রানে কোন উইকেট না হারিয়ে পাওয়ার প্লে শেষ করেন তারা।

এরপর যদিও ইনিংসের সপ্তম ওভারে এসে রিয়াদের স্পিনে লন অফে ছক্কা মারতে গিয়ে ডেভিড ভিসের হাতে ধরা খান তামিম। ২৫ রানে ফিরেছেন তিনি। নতুন ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয় নেমেই প্রথম বলে মারতে গিয়ে ফিরেছেন শূন্য রানে। দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে কুমিল্লাকে কিছুটা চেপে ধরেছিলেন রিয়াদ।

কিন্তু এক প্রান্ত আগলে রেখে খুলনার বোলারদের উপর তাণ্ডব চালিয়েছিলেন লুইস। ৩১ বলে অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন। পর পর দুই উইকেট পতনের পর তাঁকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছিলেন অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। ৯৭ রানের জুটি গড়েন দুইজনে। ২১ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলে কায়েস সাজঘরের পথ ধরেন।

কায়েসর বিদায়ের পর একে একে ফিরেন থিসারা পেরেরা এবং শহীদ আফ্রিদি। কিন্তু তাণ্ডব চলতেই থাকে লুইসের ব্যাটে। তাঁর সাথে ব্যাটিং ছন্দে যোগ দেন শামসুর রহমান শুভ। শেষ ওভারে এসে বিশাল এক ছক্কা হাঁকিয়ে ৪৭ বলে শতক হাঁকান লুইস। নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৪৯ বলে ১০৯ রানে অপরাজিত ছিলেন এই উইন্ডিজ তারকা।

১৫ বলে ২৮ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত ছিলেন শুভ। খুলনার সামনে লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ২৩৮ রানের। খুলনার হয়ে ৩২ রানে দুই উইকেট পেয়েছেন রিয়াদ। দুই উইকেট নিয়েছেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েটও।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স একাদশঃ তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস (অধিনায়ক), মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, এভিন লুইস, এনামুল হক বিজয়, মেহেদি হাসান, শহিদ আফ্রিদি, থিসারা পেরেরা, মোহাম্মদ শহীদ, শামসুর রহমান শুভ, ওয়াহাব রিয়াজ।

খুলনা টাইটান্স একাদশঃ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আরিফুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, ডেভিড মালান, শরীফুল ইসলাম, তাইজুল ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকী, সাদ্দাম হোসেন, ব্র্যান্ডন টেইলর, ডেভিড ভিসে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

খুলনা টাইটান্সঃ ৮১/২ (৯ ওভার)

টেইলর ৩৪*, মাহমুদউল্লাহ ১*

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সঃ ২৩৭/৫ (২০ ওভার)

(লুইস ১০৯*, শুভ ২৮*; রিয়াদ ২/৩২)

পাঠকের মতামত