মালয়েশিয়ার জন্য দুঃসংবাদ, হারালো নিজেদের অধিকার

দখলদালি নীতিতে থাকা ইসরাইলের ক্রীড়াবিদদের নিষিদ্ধ করায় ২০১৯ সালের ওয়ার্ল্ড প্যারা সুইমিং চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজনের অধিকার হারিয়েছে মালয়েশিয়া। গত রোববার মালয়েশিয়ার কাছ থেকে এ সুযোগ কেড়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আন্তর্জাতিক প্যারা-অলিম্পিক কমিটি। খবর পার্সটুডের

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার ক্রীড়া কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা জুলাইয়ে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠেয় প্যারা সুইমিং চ্যাম্পিয়নশিপে কোনো ইসরাইলি খেলোয়াড়কে অংশ নিতে দেবে না। ফিলিস্তিনের ব্যাপারে ইসরাইলের দখলদার নীতির কারণে বরাবরই তেল আবিবের সমালোচনা করে আসছে মালয়েশিয়ার নেতৃত্ব। এর ধারাবাহিকতায় এই আয়োজনে ইসলাইলকে বয়কট করে দেশটি।

বিষয়টিকে ‘সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে ব্যর্থতা’ হিসেবে চিহ্নিত করে লন্ডনে প্যারা-অলিম্পিক কমিটির বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে বলা হয়, যখন স্বাগতিকরা কোনো নির্দিষ্ট জাতির ক্রীড়াবিদদের রাজনৈতিক কারণে ছেঁটে ফেলতে চান, তখন নতুন স্বাগতিক খোঁজা ছাড়া আমাদের কোনো বিকল্প থাকে না।

ইসরাইলের পক্ষে আন্তর্জাতিক প্যারা-অলিম্পিক কমিটির এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার পর মালয়েশিয়া তাদের অবস্থানে অটল রয়েছে। দেশটির যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী সাইয়্যেদ সাদিক আবদুর রহমান বলেছেন, মানবতা ও ফিলিস্তিনি জাতির অধিকারের প্রতি ভালোবাসার কারণে তার দেশ আগের সিদ্ধান্তে অনড় থাকবে। এ ধরনের ক্রীড়া অনুষ্ঠানের চেয়ে ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে দাঁড়ানো বড় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

জুলাইয়ের জন্য নির্ধারিত এ প্যারা সুইমিং চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন আয়োজক কারা হতে যাচ্ছে সে বিষয়ে অবশ্য এখনো সিদ্ধান্ত জানায় নি কমিটি।

পাঠকের মতামত