জানুন যেভাবে হয়ে থাকে ‘প্রশ্নফাঁস’

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) বলছে, ভর্তি ও নিয়োগ পরীক্ষায় মূলত দুভাবে জালিয়াতি হয়।

একটি চক্র প্রশ্নফাঁস করে, অন্য চক্রটি পরীক্ষার দিন প্রশ্ন সংগ্রহ করে সমাধান বের করে। এর পর ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে তা পরীক্ষার্থীদের সরবরাহ করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সিআইডির দাবি, তারা সবচেয়ে বড় প্রশ্নফাঁস চক্রটির মূলোৎপাটন করতে পেরেছে। সর্বশেষ ডিজিটাল ডিভাইস জালিয়াত চক্রের মূলহোতা হাফিজুর রহমান হাফিজ ও মাসুদ রহমান তাজুলসহ এখন পর্যন্ত এ দুটি চক্রের ৪৬ জনকে গ্রেফতার করেছে তারা।

সিআইডির মতে, ভর্তি ও নিয়োগ পরীক্ষায় মূলত দুভাবে জালিয়াতি হয়। একটি চক্র প্রশ্ন ফাঁস করে, অন্য চক্রটি পরীক্ষার দিন প্রশ্ন সংগ্রহ করে সমাধান বের করে। এর পর ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে তা পরীক্ষার্থীদের সরবরাহ করে।

সিআইডি প্রশ্নফাঁস চক্রটিকে আগেই শনাক্ত করেছে এবং অপরাধীদের গ্রেফতার করেছে। আর এবার তারা ডিজিটাল ডিভাইস জালিয়াতি চক্রটিকেও গ্রেফতার করেছে।

পাঠকের মতামত